মুরাদনগরে ২৪ঘন্টায় আরো ১৬জন করোনা রোগী শনাক্ত

আরিফ গাজী :
কুমিল্লার মুরাদনগরে ২৪ঘন্টায় ১জনের মৃত্যুসহ আরো ১৬জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলায় এই রোগী শনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ নাজমুল আলম। এনিয়ে উপজেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৯৬জনে। মোট মৃতের সংখ্যা ৪।

২২শে মে সর্বশেষ প্রাপ্ত ফলাফলে নতুন করে একই গ্রামের ৮জনসহ ১৬জনের করোনা শনাক্ত হয়। তারা হলেন সদর ইউনিয়নের নাগেরকান্দি গ্রামের ৮জন ও সুরেশ্বরর্দী গ্রামের ১জন, নবীপুর পূর্ব ইউনিয়নের বাখরনগর গ্রামের ১জন, গুঞ্জর গ্রামে ২জন, মুরাদনগর উপজেলা পরিষদের ১জন, উত্তরা ব্যাংক কোম্পানীগঞ্জ শাখার ১জন কর্মকর্তা, ১জন স্বাস্থ্যকর্মী ও নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের উত্তরত্রিশ গ্রামের ১জন মহিলা করোনা উপর্সগ নিয়ে মৃত্যুবরন করার পর তার রির্পোট পজেটিভ আসে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ২১মে পর্যন্ত মোট ৬৭৪জনের নমুনা প্রেরণ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত রির্পোটের সংখ্যা ৬০৪জন। প্রাপ্ত রির্পোটে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯৬জন। মোট মৃত্যু ৪জন। এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ ৪জন।

এর আগে মুরাদনগর উপজেলার নবীপুর পূর্ব ইউনিয়নের বাখরনগর গ্রামে ১২জন, নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের উত্তরত্রিশ গ্রামের ৩৪জন, রহিমপুর গ্রামের ১জন, নবীপুর গ্রামের ১জন, রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউনিয়নের কাঠালিয়াকান্দা গ্রামে ৫ জন, রামচন্দ্রপুর বাজার সংলগ্ন একইউপি সদস্যসহ ২জন, মুরাদনগর সদর ইউনিয়নের মোহনা আবাসিক এলাকায় ১জন, একই ইউনিয়নের নাগেরকান্দি গ্রামে ৪জন, ধামঘর ইউনিয়নের ১জন।

দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল গ্রামের ১জন, ছালিয়াকান্দি ইউনিয়নের সুবিলারচর গ্রামে ১জন, নেয়ামতকান্দি ১জন, গাজীপুর ১জন, কড়ইবাড়ী ১জন, উপজেলার সাবেক স্বাস্থ্য কর্মকর্তার মেয়ে ১জন, পাহাড়পুর ইউনিয়নের প্রান্তি গ্রামের ১ জন ও সুরানন্দি গ্রামের ৪ জন। এছাড়াও উপজেলা সদর ইউনিয়নের নাগেরকান্দি গ্রামে করোনায় আক্রান্ত হয়ে নাছির নামের এক প্রবাসী এবং উত্তরত্রিশ গ্রামের খালেক নামের এক ব্যবসায়ী মৃত্যুবরন করেন। অপরদিকে দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল গ্রামের একজন করোনা রোগী পালিয়ে গেলেও এখনো তার কোন খোঁজ মেলেনি।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
error: ধন্যবাদ!