৫ দফা দাবিতে হাটহাজারী মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম : হেফাজতে ইসলামের প্রচার সম্পাদক ও দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক মাওলানা আনাস মাদানীর বহিস্কারসহ পাঁচ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। আজ বুধবার দুপুর ২টা থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়ে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত চলে।

চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক বলেন, ‘মাদ্রাসার আভ্যন্তরীণ কিছু বিষয়ে শিক্ষার্থীরা ভেতরই আন্দোলন করছে। আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি। এরই মধ্যে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ সিনিয়র শিক্ষকদের নিয়ে বিষয়টা সমাধানের উদ্যোগ নিয়েছে।’

আন্দোলনকারী একাধিক শিক্ষার্থী জানান, এ ছয় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত মাদ্রাসার একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। যতক্ষণ দাবি আদায় হবে না ততক্ষণ আন্দোলনে থাকবে শিক্ষার্থীরা। প্রয়োজনে কারাগারে যেতেও প্রস্তুত আন্দোলনকারীরা।

জানা যায়, জোহরের নামাজের পর একদল শিক্ষার্থী শ্লোগান দিয়ে মিছিল শুরু করে। মিছিল সহকারে তারা মাদ্রাসার বাইরে সড়কে অবস্থান নেয়ার চেষ্টা করে। পুলিশি বাঁধার মুখে তারা মাদ্রাসার ভেতর ঢুকে মাদ্রাসার প্রবেশের সকল গেইটে তালা লাগিয়ে দেয়। এরপর সেখানেই বিক্ষোভ শুরু করে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। আন্দোলন চলাকালে তারা আল্লামা আহমদ শফির পুত্র আনাস মাদানীর বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকে।

আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, শত বছর বয়সী আল্লামা আহমদ শফি বর্তমানে বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছেন। তিনি শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ অক্ষম। এ অবস্থায় আনাস মাদানী নিজের ইচ্ছে মত কোনো নিয়ম না মেনে মাদ্রাসা থেকে শিক্ষক-কর্মচারীদের চাকরিচ্যুত করছেন। মাওলানা আনাস মাদানী হাটহাজারী মাদ্রাসা, হেফাজতে ইসলাম ও বেফাকে নিজের বলয় বাড়াতে তৎপরতা চালাচ্ছেন।

এরই মধ্যে আন্দোলকারী শিক্ষার্থীরা ছয়টি দাবি উপস্থাপন করেছে। তাদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে আল্লামা শফিপুত্র আনাস মাদানীকে মাদ্রাসা থেকে বহিস্কার করা, শিক্ষার্থীদের হয়রানি বন্ধ করা, আল্লামা আহমদ শফি অক্ষম হওয়ায় মহাপরিচালক পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া, শিক্ষকদের নিয়োগ ও চাকরি থেকে অব্যাহতির শুরা কমিটির নিকট ন্যস্ত করা, বিগত সময়ে চাকরিচ্যুত হাক্কানী আলেমদের পূর্ণবহাল করা এবং বিতর্কিত সদস্যদের পদচ্যুত করা অন্যতম। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা আল্লামা আহমদ শফি অনুসারী কয়েকজন শিক্ষককের কক্ষ ভাঙচুর করেছে। এতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি নষ্ট হয়েছে।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
error: ধন্যবাদ!