অর্থমন্ত্রীর আন্তরিকতায় দক্ষিণ কুমিল্লার হাজারো কৃষকের মুখে ফুটছে হাসি

মাজহারুল ইসলাম বাপ্পি :
দক্ষিণ কুমিল্লার হাজারো কৃষকের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল গুইঙ্গাজুরি-ডাকাতিয়া খাল খনন করা। সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে কুমিল্লার কৃষকদের দাবি পূরণের লক্ষ্যে খালটির খনন শুরু হয়েছে । বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকারের অর্থমন্ত্রী কুমিল্লা -১০ আসনের সংসদ সদস্য আ.হ.ম মুস্তফা কামাল এফসিএ (লোটাস কামাল) এর আন্তরিকতায় এ এলাকার কৃষি কাজের উন্নয়নে কুমিল্লার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড থেকে লাকসামের মুদাফফরগঞ্চ পর্যন্ত ২৭ কিলোমিটার খাল খননের কাজ চলতি বছরের বর্ষা মৌসুমের আগেই শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।
জানা যায়, বিভিন্ন জাতের ধান উৎপাদন সহ নানা কৃষি পণ্য উৎপাদনে কুমিল্লার কৃষকদের ভূমিকা অন্যতম। দেশের কৃষির চাহিদা মেটাতে যথেষ্ট অবদানও রাখছেন কুমিল্লার কৃষকেরা। তবে কুমিল্লার দক্ষিণ অঞ্চলের কৃষকদের জন্য বিষপোড়া ছিল ফসলী জমির মাঝখান দিয়ে প্রবাহিত হওয়া খননহীন গুইঙ্গাজুরি-ডাকাতিয়া খালটি। এ খালটি দীর্ঘ দিন যাবত খনন না করার ফলে বর্ষা মৌসুম সহ বছরের অধিকাংশ সময় দক্ষিণ কুমিল্লার কৃষকদের ফসলী জমি পানিতে তলিয়ে থাকত। হাজার হাজার কৃষক এর কৃষি পণ্য নষ্ট হয়ে লোকসান গুনতে হতো বছরের পর বছর। কুমিল্লার কৃষকদের তথা সদর দক্ষিণ,লালমাই,লাকসাম উপজেলা ও সিটির আংশিক এলাকার কৃষকদের দীর্ঘদিনের এ দাবি পূরণ এবং এলাকার কৃষি কাজের উন্নয়নের লক্ষ্যে বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকারের অর্থমন্ত্রী কুমিল্লা -১০ আসনের সংসদ সদস্য আ.হ.ম মুস্তফা কামাল এফসিএ (লোটাস কামাল) এর আন্তরিকতায় ইতিমধ্যে খাল খনন শুরু হয়েছে । এতে করে হাজার হাজার কৃষকের মুখে হাসি ফুটে উঠছে। মানুষের দীর্ঘ দিনের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটছে। এছাড়াও বিভিন্ন প্রজাতির মাছ উৎপাদনেও আমূল পরিবর্তন আসবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।।

নিয়মানুযায়ী শতভাগ খাল খননের অঙ্গীকার নিয়ে কাজ শুরু করেছেন মেসার্স সালেহ আহম্মেদ বাবুল নামীয় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান । খাল খনন কাজের মান নিয়েও সন্তোষ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। এ ব্যাপারে সদর দক্ষিণের শ্রীনিবাস গ্রামের বাসিন্দা ও সামাজিক সংগঠন কুমিল্লা ন্যাশনাল ক্লাবের অর্থ সম্পাদক মোঃ হৃদয় হাশেম বলেন,মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল এমপি মহোদয় আমাদের এলাকার মানুষের দীর্ঘ দিনের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটিয়েছেন। একদিকে যেমন বছরজুড়ে সৃষ্ট বন্যা থেকে আমরা রক্ষা পাব তেমনিভাবে গ্রামের মানুষের ঐতিহ্য প্রাকৃতিক মাছ উৎপাদনও ব্যাপক সাড়া জাগবে। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান মেসার্স সালেহ আহম্মেদ বাবুল এর প্রজেক্ট পরিচালক ফারুক চৌধুরী জানান, শতভাগ খাল খনন কাজ করার অঙ্গীকার নিয়ে কাজ শুরু করেছি। নিজে স্ব শরীরে উপস্থিত থেকে কাজের সঠিক মান নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি। শেষ পর্যন্ত এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।
এ ব্যাপারে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম সারওয়ার বলেন, আমাদের মন্ত্রী মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দক্ষিণ কুমিল্লা প্রায় সকল খাল খনন হচ্ছে। পাশাপাশি খালের পাড়ে বাধ নির্মাণ করে গাছ লাগিয়ে বনায়ন প্রকল্পেরও পরিকল্পনা রয়েছে। সর্বপরি দেশটাকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করছে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
error: ধন্যবাদ!