ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব

তথ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতি হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ আর দিন বদলের রাজনীতি।

আজ বৃহস্পতিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিল-২০২০ উপলক্ষে শহরের পুরাতন স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ হওয়ার কারণে এখন ১৫ কোটি মানুষের হাতে মোবাইল ফোন। একজন রিকশাওয়ালা ভাইয়ের স্ত্রীর ৫০০ টাকার দরকার হলে স্বামীকে ফোন করে বলেন, আমার ৫০০ টাকার দরকার। আর সাথে সাথে সেই রিকশাওয়ালা ভাই মোবাইল ফোনের মাধ্যমে টাকা পাঠিয়ে দেন। কৃষকভাই তাঁর জমির পোকার ছবি তুলে কৃষি অফিসে পাঠিয়ে দেন আর কৃষি অফিসার ফোনের মাধ্যমেই পরামর্শ দিয়ে দেন। মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে আজ গ্রামীণ অর্থনীতিকে চাঙ্গা করা হয়েছে।

দিন বদল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন খালি পায়ের মানুষ দেখা যায় না, তালি দেয়া কাপড় পরা মানুষ দেখা যায় না। এখন আর কুঁড়ে ঘর খুঁজে পাওয়া যায় না। অন্ততপক্ষে টিনের চালা দেয়া ঘর দেখা যাবে। কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা ব্যবস্থার উন্নতি করা হয়েছে। এই হচ্ছে শেখ হাসিনার দিন বদলের রাজনীতি।

অপরপক্ষে বিএনপির রাজনীতি তাদের নেত্রী খালেদা জিয়ার হাঁটু ব্যথা আর কোমর ব্যথার মধ্যে ঢুকে গেছে। তারা জনগণের জন্য কিছু বলে না। বিএনপির নেতা কর্মীরা যেভাবে নেচে গেয়ে তাদের নেত্রীর কারাবাস দিবস পালন করে তাতে মনে হয়, তারা তাদের নেত্রীর কারাবাসে খুশি।

মন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের আইন আদালত এখন স্বাধীন, দুদক স্বাধীন। যার কারণে, আওয়ামী লীগের এমপিদেরও আদালতে যেতে হয়।

নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ক্ষমতায় থাকলে বিনয়ী হতে হয়। অব্যাহতভাবে জনসমর্থন পেতে হলে শুধু উন্নয়ন দিয়ে সম্ভব নয়, মানুষের প্রতি বিনয়ী হতে হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো. মইনুদ্দীন মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে দলের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম, এমপি বক্তৃতা করেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিএনপি ভোট কারচুপির কথা বলে। আওয়ামী লীগ যদি ভোট কারচুপি করতো তবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিনটি আসনের মধ্যে দুটিতে বিএনপি কিভাবে জয়লাভ করলো? তিনি আরও বলেন, বিএনপির দিন শেষ হয়ে গেছে। জনগণ আর বিএনপি-জামাতকে ক্ষমতায় আসতে দিবে না। যারা বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করেনি, জাতীয় চার নেতা হত্যার বিচার করেনি, তাদের মুখে আইনের শাসনের কথা মানায় না।

দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু পায়ে হেঁটে, সাইকেল চালিয়ে রাজনীতি করেছেন। আপনারা গ্রামে গ্রামে যান। ভুল করে থাকলে ভুল স্বীকার করুন। কে সভাপতি হবেন, কে সেক্রেটারি হবেন তার চিন্তা না করে দলকে সুসংগঠিত করতে হবে।

এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, কেন্দ্রীয় সদস্য বেগম আখতার জাহান ও সাহাবুদ্দীন ফরাজী, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডবলু সরকার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সামিল উদ্দীন আহ্ম্মেদ শিমুল এমপি ও ফেরদৌসি ইসলাম জেসি এমপি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল অদুদ।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
error: ধন্যবাদ!