অবৈধ ডাক্তার, নকল ঔষধ বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে প্রতিরাধ গড় তুলতে হবে- এমপি বাহার

এমদাদুল হক সোহাগঃ
যেসব চিকিৎসক নকল ও ভেজাল রেজিস্ট্রেশন বিহীন ফুড সাপ্লিমেন্ট কৌটা প্রেসক্রিপশনে লিখেন তাদের বিরুদ্ধে প্রমান সহ সিভিল সার্জনের কাছে অভিযোগ দিবেন। ওইসব ডাক্তারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলবেন। আমি কুমিল্লার মানুষকে ভালোবাসি।

আপনারা যদি প্রতিরোধ গড়তে আমার সহযোগিতার প্রয়োজন হয় সেক্ষেত্রে আপনাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আমি প্রস্তুত। চিকিৎসা মানুষর জীবনের একটি অন্যতম মৌলিক চাহিদা। মানুষ যখন অসুস্থ্যতা অনুভব করে তখন ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়। তখন যদি ডাক্তার অথবা ঔষধ বিক্রতাদের মাধ্যমে মানুষ প্রতারিত হয়ে অবৈধ অথবা নকল ঔষধ সেবন করতে হয় তাহলে ওই ব্যক্তির জীবনে আরো জটিল সমস্যা তৈরিতে সহায়ক হিসাবে কাজ করবে। এক্ষেত্রে আমাদের সবাইকে অবৈধ ঔষধ লিখা ডাক্তার ও নকল ঔষধ বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।
গতকাল শনিবার বাংলাদেম কেমিস্টস এন্ড ড্রাগিস্টস সমিতি কুমিল্লা জেলা শাখার আয়োজনে কুমিল্লা টাউনহল বীরচদ্র নগর মিলনায়তনে মেয়াদ উর্ত্তীণ, নকল, ভেজাল, রেজিস্ট্রেশনবিহীন, ফিজিশিয়ান স্যাম্পল ও সরকারি ঔষধ বিক্রয় প্রতিরোধ এবং প্রেসক্রিপশন ছাড়া এন্টিবায়োটিক ঔষধ বিক্রয় বন্ধ ও সরকার নির্ধারিত মূল্যে ঔষধ বিক্রয় কল্পে জনসচেতনতা মূলক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলা বলেন, কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা হাজী আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার।
তিনি আরো বলেন, সরকার নির্ধারিত মূল্যে ঔষধ বিক্রি করতে গিয়ে আপনারা লাভ যাই করেন তবে আমাদরকে কাম্পানীর সঠিক ঔষধটি দিবন। ঔষধ বিক্রি ব্যবসার পাশাপাশি মানুষের সেবাও করা যায়। তাই মানুষ আপনাদের পেশাকে মর্যাদা দিতে চেষ্টা করে।
বাংলাদেশ কেমিস্টস এন্ড ড্রাগিস্টস সমিতি কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি ও কেদ্রীয় পরিচালনা পরিষদের পরিচালক মোঃ এনায়েত উল্লাহ এর সভাপতিত্বে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি কুমিল্লা জেলা শাখার সহ-সভাপতি মোঃ ফয়েজ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কুমিল্লা মডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ মুজিব রহমান, ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর কুমিল্লার সহকারী পরিচালক মোঃ সফিকুল ইসলাম, সংগঠনটির কেদ্রীয় সহ-সভাপতি সমীর কান্তি সিকদার, কুমিল্লার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহাদাত হোসেন। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি কুমিল্লা জেলার সদ্য সাবেক সিভিল সার্জন বর্তমান কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাক্তার মুজিবুর রহমান বলেন, মানুষকে প্রতারণার কেন্দ্রবিন্দু বানাবেন না। অসাধু চক্র ময়দা দিয়ে বানানো ৪০ টাকার ফুড সাপ্লিমেন্ট এক হাজার থেকে বারোশো টাকা পর্যন্ত বিক্রি করেন। এসব বিষয়ে ফার্মাসিস্টদের আরো সতর্ক এবং এসব ডাকাতি বন্ধ করার জন্য জনসচেতনতা ও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলার জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।
এছাড়াও সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কুমিল্লা জেলা শাখার নির্বাহী সদস্য আবু বকর ছিদ্দিক, মুরাদনগর উপজলার সভাপতি নারায়ন দেবনাথ, ইলিয়টগঞ্জ বাজার শাখার সভাপতি হাবীবুর রহমান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির কুমিল্লা জেলার সকল উপজেলার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ সকল নেতৃবৃন্দ এবং ঔষধ ব্যবসায়ীগণ। শুভেছা বক্তব্যে বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি কুমিল্লা জলা শাখার সহ-সভাপতি মোম ফয়েজ প্রধান অতিথি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপির নিকট সংগঠনটির কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করতে সংগঠনের কার্যালয় স্থাপনের জন্য একটি জায়গা বরাদ্ধ দেয়ার অনুরাধ জানান।
সভাপতির বক্তব্যে মোঃ এনায়ত উল্লাহ সংগঠনের কেদ্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক আজ থেকে কুমিল্লা জেলার সর্বত্র সকল ঔষধ ব্যবসায়ীকে সরকার নির্ধারিত মূল্যে ঔষধ বিক্রি করার অনুরোধ জানান। পরে তিনি অনুষ্ঠানটি সুদরভাবে আয়োজন করতে পারায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান ও আগত সকল অতিথিদের কাছে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। সভায় অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতির সভাপতি মোঃ মোর্শেদ আলম ভূইয়া,
সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোঃ আব্দুল আলিম খান, লাকসাম উপজেলা শাখার সভাপতি আলহাজ্ব মাহবুবুর রহমান বাবুল, সাধারণ সম্পাদক লুৎফুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন সিংহ, নাঙ্গলকাট শাখার সভাপতি শাহাদাত হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

     আরো পড়ুন....

পুরাতন খবরঃ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
error: ধন্যবাদ!